একনজরে

10/recent/ticker-posts

International Day of Potato আন্তর্জাতিক আলু দিবস,জেনে নিন কেন?

বিশ্বের জনসংখ্যার ২/৩ ভাগের প্রধান সবজি আলু।
পৃথিবী জুড়েই সবজি হিসেবে আলুর কোনও বিকল্প নেই।২০৩০ সালের মধ্যে আলুর উৎপাদন বৃদ্ধি হবে ১১২%।
৩০ মে,২০২৪ প্রথম আন্তর্জাতিক আলু দিবস উদযাপন

খোশখবর ডেস্কঃ আলু ছাড়া আপনার রান্নাঘর অচল।এটা কলকাতা থেকে ক্যালিফোর্নিয়া-সব জায়গাতেই সত্যি।খাদ্যবিজ্ঞানীদের মতে আলু হল সমগ্র বিশ্বের খাদ্য তালিকায় গুরুত্বপূর্ণ এক সবজি।কারণ এটি হল বিশ্বের পাঁচটি প্রধান খাদ্য শস্যের মধ্যে একটি যা খাদ্য নিরাপত্তায় অবদান রাখে। মানুষের খাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে চাল এবং গমের পরে আলু বিশ্বের তৃতীয় গুরুত্বপূর্ণ খাদ্য শস্য।

আলু আকারে ছোট।পারিবারিক চাষে মহিলারাও আলু উৎপাদনে অংশ নেয়।দেখা গেছে জীববৈচিত্র্যের সংরক্ষণ ও টেকসই ব্যবহারের উপর নির্ভর করে আলুর উৎপাদন বিশ্ব জুড়েই ক্ষুধা, অপুষ্টি এবং দারিদ্র্য হ্রাস করার ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা রাখে।আলুর অভিযোজন ক্ষমতা অনেক।খরা, ঠান্ডা এবং অনুর্বর জমিতেও চাষ করা যায় আলু। রাষ্ট্রসঙ্ঘের ফুড এন্ড এগ্রিকালচারাল অর্গানাইজেশনের হিসেব জানাচ্ছে যে বিশ্বজুড়ে ২/৩ ভাগ মানুষ তাদের প্রধান ফসল হিসাবে আলু খায়। প্রায় ৫০% ক্ষেত্রেই দেখা গেছে আলু গৃহস্থালির প্রধান খাদ্য বা সবজি হিসেবে ব্যবহৃত হয়।



বলা হয় আলুর উৎপত্তি দক্ষিণ আমেরিকার আন্দিজে। এই মুহূর্তে বিশ্বের ১৬০টি দেশে আকার, রঙ এবং পুষ্টিগুণে ভিন্ন ১৫০০ থেকে ২০০০ রকমের আলুর ফলন হয়।হিসেব বলছে ২০৩০ সালের মধ্যেই গোটা বিশ্বে আলুর উৎপাদন ১১২% বেড়ে মোট উৎপাদন ৭৫০ মিলিয়ন টনে পৌঁছাবে।এর মধ্যে এশিয়া, আফ্রিকা এবং ল্যাটিন আমেরিকার উৎপাদন ৪৪০ মিলিয়ন টন ছাড়িয়ে যাবে। আলুর পুষ্টিগুণ, অর্থনৈতিক দিক, পরিবেশগত সুবিধে এবং সাংস্কৃতিক মূল্যবোধের কথা ভেবে ২০২৩ সালের ডিসেম্বরে রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ পরিষদে ৩০মে দিনটিকে International Day of Potato বা আন্তর্জাতিক আলু দিবস হিসাবে মনোনীত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

নতুন এই আন্তর্জাতিক দিবসের নির্দেশিকার থিম 'হার্ভেস্টিং ডাইভারসিটি, ফিডিং হোপ'। এটি ক্ষুধা ও দারিদ্র্য মোকাবেলায় এবং কৃষিখাদ্য ব্যবস্থার পরিবেশগত খারাপ প্রভাব মোকাবিলায় ফসলের গুরুত্বের ওপর জোর দেবে।



FAO-র কৃষিবিদ মাকিকো তাগুচি জানিয়েছেন যে সাধারণ মানুষ যখন আলুর কথা শোনে তখন তাদের মনে প্রথমেই আসে ফ্রেঞ্চ ফ্রাই বা পটেটো চিপস যা আলু খাওয়ার অস্বাস্থ্যকর দিক তুলে ধরে।আন্তর্জাতিক এই দিবসে আলুর পুষ্টিকর দিক তুলে ধরার পাশাপাশি তা খাওয়ার বিভিন্ন স্বাস্থ্যকর উপায়ও প্রদর্শন করা হবে গোটা বিশ্বের মানুষের সামনে। এই আন্তর্জাতিক দিবস শস্যের বৈচিত্র্য রক্ষার পাশাপাশি আলুর সাংস্কৃতিক ও রন্ধনসম্পর্কীয় গুরুত্ব বোঝাতে ক্ষুদ্র-পরিবারের কৃষকদের ভূমিকাও তুলে ধরা হবে, যাদের একটি উল্লেখযোগ্য অংশ নারী।

 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ